এমন কিছু পত্রিকা এ কাজ করেছে যাদের ওপর সরকারের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেইঃ ম্যাকরন

আন্তর্জাতিক

অনলাইন ডেস্কঃ  অবশেষে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) অবমাননায় মুসলমানদের অনুভূতি উপলব্ধি করতে পারলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরন। তিনি তার ইসলাম বিদ্বেষী ও ইসলাম অবমাননাকর বক্তব্য থেকে পিছু হটেছেন। তবে তিনি এ বিষয়ে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাননি।

শনিবার আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ম্যাকরন বলেছেন, ইসলাম অবমাননাকর কার্টুন প্রকাশের ফলে মুসলমানদের অনুভূতিতে যে আঘাত লেগেছে তা তিনি উপলব্ধি করছেন।

তিনি আরও বলেন, কিছু মানুষ আছে যারা ইসলাম ধর্মের বিকৃতি ঘটাচ্ছে এবং এই ধর্মের নাম নিয়ে এটি রক্ষার ঝাণ্ডা হাতে তুলে নিয়েছে। 

ইসলাম অবমাননাকর বক্তব্য প্রদানকারী ফরাসি প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, ব্যাঙ্গাত্মক কার্টুন প্রকাশ কোনও সরকারি প্রকল্প নয় বরং এমন কিছু পত্রিকা এ কাজ করেছে যাদের ওপর সরকারের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই। 

ইমানুয়েল ম্যাকরনের ইসলাম অবমাননাকর বক্তব্যের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী মুসলমানরা তীব্র ক্ষোভে ফেটে পড়ার পর নিজের বক্তব্য থেকে সরে গেলেন তিনি।

এমন সময় তিনি নতুন এ বক্তব্য দিলেন যখন সম্প্রতি তিনি ফরাসি পত্রিকা শার্লি এবদোতে প্রকাশিত ইসলাম অবমাননাকর কার্টুনের পক্ষ সমর্থন করে কথা বলায় বিশ্বব্যাপী ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন। 

সম্প্রতি স্যামুয়েল প্যাটি নামক ফ্রান্সের একজন শিক্ষক ক্লাসের শিক্ষার্থীদের সামনে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.)-কে নিয়ে অবমাননাকর চিত্র প্রদর্শন করেন। এরপর এক হামলায় তিনি নিহত হন। ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরন ওই হত্যাকাণ্ডের জন্য তার দেশের মুসলমানদের দায়ী করেন এবং দাবি করেন মুসলমানরা ফ্রান্সকে ধ্বংস করে ফেলতে চায়।

ম্যাকরন আরও ন্যাক্কারজনক বক্তব্যে ঘোষণা করেন, ফ্রান্সে ইসলামের নবী (সা.)-কে অবমাননাকর চিত্র প্রকাশ অব্যাহত থাকবে। তার এ বক্তব্যের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *